in ,

করোনা রোগীদের ফিরিয়ে দিচ্ছে কলকাতার বহু হাসপাতাল

চিকিৎসক, বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কাকে সত্যিই করে পুজো মিটতেই কলকাতার বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউ-তে করোনা রোগীদের বেড পাওয়ার ক্ষেত্রে সমস্যা তৈরি হয়েছে৷ কারণ অধিকাংশ বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউ- গুলিতেই আইসিইউ-তে কোনও বেড খালি নেই৷ টাইমস অফ ইন্ডিয়া-তে প্রকাশিত একটি রিপোর্টে এমনই দাবি করা হয়েছে৷

ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, মাঝারি বা গুরুতর উপসর্গ রয়েছে, এমন করোনা রোগীদেরও ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে হাসপাতালগুলি৷ গত ৭ দিনে এই ধরনের অন্তত ১০০ জন রোগীকে ফিরিয়েছে কলকাতার পাঁচ থেকে ছ’টি নামী বেসরকারি হাসপাতাল৷ ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, মাঝারি বা গুরুতর উপসর্গ রয়েছে, এমন করোনা রোগীদেরও ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে হাসপাতালগুলি৷ গত ৭ দিনে এই ধরনের অন্তত ১০০ জন রোগীকে ফিরিয়েছে কলকাতার পাঁচ থেকে ছ’টি নামী বেসরকারি হাসপাতাল৷
ওই প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, মাঝারি বা গুরুতর উপসর্গ রয়েছে, এমন করোনা রোগীদেরও ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে হাসপাতালগুলি৷ গত ৭ দিনে এই ধরনের অন্তত ১০০ জন রোগীকে ফিরিয়েছে কলকাতার পাঁচ থেকে ছ’টি নামী বেসরকারি হাসপাতাল৷

বেসরকারি হাসপাতালগুলির কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, আগামী কয়েকদিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে৷ কারণ পুজোর পর রাজ্য জুড়ে সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বমুখী৷ ফলে হাসপাতালগুলির উপরে চাপ আরও বাড়তে পারে৷ বেসরকারি হাসপাতালগুলির কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, আগামী কয়েকদিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে৷ কারণ পুজোর পর রাজ্য জুড়ে সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বমুখী৷ ফলে হাসপাতালগুলির উপরে চাপ আরও বাড়তে পারে৷
বেসরকারি হাসপাতালগুলির কর্তৃপক্ষের আশঙ্কা, আগামী কয়েকদিনে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে৷ কারণ পুজোর পর রাজ্য জুড়ে সংক্রমণের হার ঊর্ধ্বমুখী৷ ফলে হাসপাতালগুলির উপরে চাপ আরও বাড়তে পারে৷

শহরের বেশির ভাগ বেসরকারি হাসপাতালগুলি জানিয়ে দিয়েছে, তাদের সমস্ত আইসিইউ বেডই ভর্তি হয়ে গিয়েছে৷ আবার কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল সাধারণ বেডগুলিকে আইসিইউ বেডে পরিণত করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে৷ শহরের বেশির ভাগ বেসরকারি হাসপাতালগুলি জানিয়ে দিয়েছে, তাদের সমস্ত আইসিইউ বেডই ভর্তি হয়ে গিয়েছে৷ আবার কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল সাধারণ বেডগুলিকে আইসিইউ বেডে পরিণত করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে৷
শহরের বেশির ভাগ বেসরকারি হাসপাতালগুলি জানিয়ে দিয়েছে, তাদের সমস্ত আইসিইউ বেডই ভর্তি হয়ে গিয়েছে৷ আবার কয়েকটি বেসরকারি হাসপাতাল সাধারণ বেডগুলিকে আইসিইউ বেডে পরিণত করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছে৷

পিয়ারলেস হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে তিন জন গুরুতর অসুস্থকে ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে তারা৷ কারণ তাদের হাসপাতালে থাকা আইটিইউ-এর ২১টি বেডই ভর্তি থাকছে৷ প্রত্যেক তিন দিন অন্তর হয়তো একটি বেড খালি হচ্ছে৷ পুজোর আগে থেকেই এই পরিস্থিতি চলছে বলে দাবি করেছেন হাসপাতালের সিইও সুদীপ্ত মিত্র৷ পিয়ারলেস হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে তিন জন গুরুতর অসুস্থকে ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে তারা৷ কারণ তাদের হাসপাতালে থাকা আইটিইউ-এর ২১টি বেডই ভর্তি থাকছে৷ প্রত্যেক তিন দিন অন্তর হয়তো একটি বেড খালি হচ্ছে৷ পুজোর আগে থেকেই এই পরিস্থিতি চলছে বলে দাবি করেছেন হাসপাতালের সিইও সুদীপ্ত মিত্র৷

পিয়ারলেস হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, প্রতিদিন গড়ে দুই থেকে তিন জন গুরুতর অসুস্থকে ফিরিয়ে দিতে বাধ্য হচ্ছে তারা৷ কারণ তাদের হাসপাতালে থাকা আইটিইউ-এর ২১টি বেডই ভর্তি থাকছে৷ প্রত্যেক তিন দিন অন্তর হয়তো একটি বেড খালি হচ্ছে৷ পুজোর আগে থেকেই এই পরিস্থিতি চলছে বলে দাবি করেছেন হাসপাতালের সিইও সুদীপ্ত মিত্র৷

What do you think?

Written by Bongo Baarta Desk

Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Loading…

0

চলতি মাসে বাড়ানো হয়নি পেট্রোল ও ডিজেলের দাম

আলু-পিঁয়াজের দাম কমাতে এবার বড় পদক্ষেপ কেন্দ্রের