দেশ

করোনার ভ্যাকসিন বেরোলে প্রথমেই ৫০ লক্ষ ডোজ ভ্যাকসিন কিনবে সরকার

ভ্যাকসিন বাজারে এলে প্রথম দফায় কমপক্ষে ৫০ লক্ষ ডোজ কেনার পরিকল্পনা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। জানা গিয়েছে, দেশের নাগরিকদের করোনার কোন ভ্যাকসিন প্রয়োগ করা হবে তা নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হলে প্রথমেই চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানদের জন্য ভ্যাকসিনের ডোজ কিনে নেবে কেন্দ্র।

গত সোমবার নীতি আয়োগের সদস্য বি কে পাল এবং কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণের নেতৃত্বে দেশে করোনা পরিস্থিতির উপর নজর রাখতে বিশেষজ্ঞ কমিটির সঙ্গে ওষুধ নির্মাতা সংস্থাগুলির বৈঠক হয়৷ ওই বৈঠকে সংস্থাগুলি কী পরিমাণ ভ্যাকসিনের ডোজ উৎপাদনে সক্ষম, প্রতিষেধকের সম্ভাব্য দাম এবং সরকার কীভাবে সংস্থাগুলিকে সাহায্য করতে পারে, সেই প্রস্তাব জমা দেওয়ার জন্য সংস্থাগুলিকে অনুরোধ করা হয়েছে৷

তবে রাশিয়া ছাড়া এখনও কোনও দেশই করোনার প্রতিষেধক আবিষ্কারের ঘোষণা করেনি। যদিও রাশিয়ার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে এখনও বেশ কিছু প্রশ্নচিহ্ন রয়েছে। ভারতও রাশিয়ার তৈরি ভ্যাকসিন নিয়ে সেভাবে উৎসাহ দেখাচ্ছে না।

অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি ভ্যাকসিন চূড়ান্ত হয়ে গেলে ভারতে তা তৈরির দায়িত্বে পুণের সিরাম ইন্সটিটিউট। এরই পাশাপাশি ভারতেও তিনটি সংস্থা করোনার ভ্যাকসিন বানাচ্ছে।

ইতিমধ্যেই হায়দরাবাদের সংস্থা ভারত বায়োটেক ও আহমেদাবাদের সংস্থা জাইডাস ক্যাডিলার করোনার ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় পর্যায়ের ক্লিনিকাল ট্রায়াল শেষের পথে। এখনও পর্যন্ত সফলতার সঙ্গেই কয়েকটি ধাপ পার করেছে ভারতে তৈরি করোনার ভ্যাকসিন। তবে ভ্যাকসিন নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছতে এখনও ৭-৯ মাস পর্যন্ত সময় লেগে যেতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close