রাজ্য

বাংলায় ‘সেফ হোম সেন্টার’ চালু করার কথা ঘোষণা করলেন মুখমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী

বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা জানান, ”১০৪টি সেফ হোম সেন্টার খোলা হচ্ছে। এগুলো কোয়ারেন্টিন নয়”। অন্যদিকে করোনা-যোদ্ধাদের জন্য ইনসেন্টিভ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

করোনা মোকাবিলায় এবার সেফ হোম সেন্টার চালু করার কথা ঘোষণা করলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্যেপাধ্যায়।
বুধবার নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা জানান, ”১০৪টি সেফ হোম সেন্টার খোলা হচ্ছে। এগুলো কোয়ারেন্টিন নয়”। অন্যদিকে করোনা-যোদ্ধাদের জন্য ইনসেন্টিভ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ”যাঁদের মৃদু উপসর্গ রয়েছে, যাঁদের সামান্য জ্বর রয়েছে, তাঁদের এখানে রাখা হবে। ডাক্তাররা দু’বার যাবেন, দেখাশোনা করবেন। বাড়ির খাবার খেতে পারবেন। হাসপাতালের বেড রাখা হচ্ছে গুরুতর অসুস্থদের জন্য”।

বাংলায় করোনা-যোদ্ধাদের জন্য ইনসেন্টিভ ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। এ প্রসঙ্গে মমতা বলেন, ”পোস্ট গ্র্যাজুয়েশন করছেন এমন করোনা যোদ্ধাদের ১০ শতাংশ করে ইনসেন্টিভ দেওয়া হবে। দেওয়া হবে কোভিড ওয়ারিয়র সার্টিফিকেটও। ফাইনাল ইয়ারের ছাত্রদের কোভিড ট্রেনি হিসেবে কাজে লাগানো হবে। রোটেশনের ভিত্তিতে কাজ হবে। হাউসস্টাফদের সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে। সিনিয়র রেসিডেন্টদেরও কাজে লাগানো হবে। ইন্টার্ন, পিজি ট্রেনিংয়ে রয়েছেন যাঁরা, তাঁরা যাতে ভাল করে পড়াশোনা করতে পারেন, সেটা দেখা হবে। তাঁদেরও রোটেশন অনুযায়ী কাজ করতে পারেন কোভিড এরিয়াতে, সেটা দেখা হবে। ইন্টার্ন হিসাবে যাঁরা কাজ করছেন তাঁদের ৩ বছরের বন্ড থাকে। করোনা-যোদ্ধা হিসেবে তাঁরা যতদিন কাজ করবেন, তাঁদের সেই সময়সীমা বন্ড থেকে বাদ দেওয়া হবে”।

করোনা পরিস্থিতি প্রসঙ্গে এদিন মমতা ফের বলেন, ”কোনও রোগীকে ফেরানো যাবে না। সকলকে বলছি মাস্ক পরুন। করোনায় অ্যাক্টিভ কেসের থেকে সুস্থতার সংখ্যা বেশি, এটা ভাল লক্ষ্মণ। কেউ করোনা লুকোবেন না, এটা কোনও অপরাধ নয়। করোনা আক্রান্ত অনেকেই বাইরে থেকে এসেছেন, সেজন্য় রাজ্য়ে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে।

Tags

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close