আবহাওয়া

দুপুরেই অন্ধকার করে এলো কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী এলাকায়

দুপুরেই অন্ধকার করে আসল। কিছুক্ষণের মধ্যেই শুরু হল মুষলধারে শুরু হল বৃষ্টি। কলকাতা সহ পার্শ্ববর্তী এলাকায় প্রবল ঝড়-বৃষ্টি শুরু হয়েছে। সঙ্গে প্রবল বজ্রপাত। ইতিমধ্যে হাওয়া অফিসের তরফে বজ্রপাতের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। সেই মতো সাধারণ মানুষকে নিরাপদে থাকার জন্যে বলা হয়েছে।

গত কয়েকদিন ধরে উত্তরবঙ্গে প্রবল বৃষ্টি হলেও দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির দেখা যায়নি। যথারীতি বাড়ছিল অস্বস্তি। বাড়তে থাকে শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রাও। শনিবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি।

শুক্রবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। কলকাতায় ০.১ মিলিমিটার, দমদমে বৃষ্টি হয়নি, সল্টলেকে ৭ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯১ শতাংস, সর্বনিম্ন ৬২ শতাংশ। সকাল থেকেই যথারীতি মেঘলা আকাশ। বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ৩৪ থেকে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে।

শুক্রবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৮.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। বৃহস্পতিবার শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৪.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে দুই ডিগ্রি বেশি। কলকাতায় ৫.৮ মিলিমিটার, দমদমে ১১ মিলিমিটার, সল্টলেকে ১০ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়। আর্দ্রতার পরিমান সর্বোচ্চ ৯২ শতাংস, সর্বনিম্ন ৬৬ শতাংশ। সকাল থেকেই যথারীতি মেঘলা আকাশ। বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে ৩৪ থেকে ২৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে।

তবে এদিন বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছিল আলিপুর হাওয়া অফিস। সকালেই হাওয়া অফিস জানায় সমগ্র দক্ষিণবঙ্গেই হাল্কা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হবে। আলিপুর আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা যায়, আগামী কয়েকদিনে কলকাতা, হাওড়া, হুগলি, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, দুই বর্ধমান, বীরভূম, মুর্শিদাবাদ, নদিয়া, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রামে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close
Close